১০ কি.মি পথের ভাড়া ১৮ হাজার টাকা, ক্ষুদ্ধ মন্ত্রী

১০ কি.মি পথের ভাড়া ১৮ হাজার টাকা, ক্ষুদ্ধ মন্ত্রী

 

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর কেএল সেন্ট্রাল থেকে সেতাপাক ১০কিলোমিটার দূরত্বের পথ। আর এই দূরত্বে দুই বাংলাদেশির কাছ থেকে ভাড়া আদায় করা হয়েছে ৯৫০ মালয়েশিয়ান রিঙ্গিত যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১৮হাজার টাকা। 

এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন স্বয়ং মালয়েশিয়া প্রধানমন্ত্রীর বিভাগের দায়িত্বরত মন্ত্রী দাতুক সেরি ন্যান্সি শুকরিও। এ অপরাধে চালককে আটক এবং তাঁর ট্যাক্সিটি জব্দ করেছে পুলিশ।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গত শুক্রবার দুই বাংলাদেশি কুয়ালা তেরেনগানু প্রদেশ থেকে বাসে এসে কেএল সেন্ট্রাল বাস টার্মিনাল এ নামে । সেখান থেকে তাদের গন্ত্যব্য সিতাপাক যাওয়ার জন্য পর্যন্ত ৫০ রিঙ্গীত করে উভয়ের সাথে ভাড়া নির্ধারণ করে ট্যাস্কিচালক। কিন্তু গন্তব্যে পৌঁছানোর পর চালক ৯৫০ রিঙ্গীত দাবি করে। এ সময় চালক গাড়ীতে থাকা কাঠের লাঠি ও ব্যাট দিয়ে আঘাতের হুমকি ও নানা রকম ভয় ভীতি দেখিয়ে তাদের সাথে থাকা টাকা ছিনিয়ে নেন।

পরে দুই বাংলাদেশী পুলিশের কাছে অভিযোগ করলে পুলিশ চালক ও ট্যাক্সিটিকে আটক করে।  

এ প্রসঙ্গে দ্যা ল্যান্ড ট্রান্সপোর্ট কমিশন জানায়, তাঁদের একটি বিশেষ ফোর্স ওই চালককে আটক করেছে এবং চালক ও ট্যাক্সি অপারেটরকে দ্যা ল্যান্ড ট্রন্সপোর্ট  কমিশনের কাছে সাক্ষ্য দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

কমিশন জানায়,  ল্যান্ড পাবলিক ট্রান্সপোর্ট অ্যাক্ট ২০১০ এর সেকশন ৭৫ এর অধীনে তদন্ত করা হচ্ছে। এতে চালক দোষী সাব্যস্ত হলে তাঁকে ৫০ হাজার রিঙ্গীতের বেশি জরিমানা করা হবে অথবা তিন বছর কারাদণ্ড দেওয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী বিভাগের মন্ত্রী দাতুক সেরি ন্যান্সি শুকরিও বলেন, ‘সরকার এই বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে বিবেচনা করছে,কারণ এটি যাত্রীদের কল্যাণের সাথে জড়িত, তা স্থানীয় বা বিদেশি যেই হউক । তিনি আরও জানান,যারা একই অভিজ্ঞতার শিকার হয়েছেন, তারা এগিয়ে যান এবং কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ করুন।

Make Website

 

Quick Contact