অভিবাসন নিয়ে দু-মুখো নীতির পথে ট্রাম্প

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প একদিকে অভিবাসনে রাশ টেনে সমর্থকদের বাহবা কুড়ালেও বেআইনি অভিবাসীদের মার্কিন নাগরিকত্ব গ্রহণের সুযোগ দিতে সার্বিক সংস্কারের জন্য চাপ দিচ্ছেন৷

USA | Tausende Menschen protestieren in LA gegen Trumps DACA-Pläne (Getty Images/David McNew)

ড্রিমার্স কর্মসূচি বাতিলের সিদ্ধান্তের পর ট্রাম্প-বিরোধী মিছিল

‘অ্যামেরিকা ফার্স্ট' নীতি যে তাঁর কাছে কতটা গুরুত্বপূর্ণ, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তা বার বার প্রমাণ করার চেষ্টা করেন৷ বিশেষ করে অভিবাসন সংক্রান্ত সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে তাঁর কড়া অবস্থান কারো অজানা নয়৷ একাধিক রাজ্য সরকার ও আদালতের বিরোধিতা সত্ত্বেও তিনি সেই সব সিদ্ধান্ত কার্যকর করার চেষ্টা ছাড়েন না৷ বেআইনি অভিবাসী শিশুদের জন্য বিশেষ কর্মসূচি বাতিল করার সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রেও তাঁর সেই মনোভাব দেখা যাচ্ছে৷ উল্লেখ্য, ২০১২ সালে ওবামা প্রশাসন এই কর্মসূচি চালু করেছিল, যার পোশাকি নাম ‘ডাকা' হলেও ‘ড্রিমার্স' নামেই সেটি বেশি পরিচিত৷ প্রায় ৭ লক্ষ তরুণ-তরুণী এর ফলে উপকৃত হয়েছেন৷ এমনকি তাঁদের অনেকে মার্কিন সেনাবাহিনীতেও যোগ দিয়েছেন৷

গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসে ট্রাম্প প্রশাসন এই কর্মসূচি বাতিলের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করে৷ তবে এই কর্মসূচির বিকল্প সৃষ্টি করতে ট্রাম্প মার্কিন কংগ্রেসকে মার্চ মাস পর্যন্ত সময় দিয়েছিলেন৷

 

মঙ্গলবার সান ফ্রানসিস্কো শহরের এক আদালত বেআইনি অভিবাসী শিশুদের জন্য বিশেষ কর্মসূচি বাতিল করার ফেডারেল সিদ্ধান্ত কার্যকর করার পথে আপাতত বাধা সৃষ্টি করেছে৷ বিচারপতি উইলিয়াম অ্যালসাপ তাঁর রায়ে গোটা দেশে ‘ডাকা' কর্মসূচি আবার চালু করার নির্দেশ দিয়েছেন৷ তাঁর রায় অনুযায়ী, এ বিষয়ে চূড়ান্ত রায়ের আগে কোনো রদবদল চলবে না৷ মঙ্গলবারই ট্রাম্প রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাট দলের সংসদ সদস্যদের উপর ‘ড্রিমার্স' কর্মসূচি নিয়ে বোঝাপড়ার জন্য চাপ দিয়েছেন৷

 

তিনি বেআইনি অভিবাসন সংক্রান্ত সমস্যার ক্ষেত্রে সার্বিক এক সমাধানসূত্রে সম্মতির ইঙ্গিত দিয়েছেন৷ তবে এর বদলে তিনি বিরোধী ডেমোক্র্যাটিক দলের কাছ থেকে সীমান্ত সুরক্ষা জোরদার করার প্রশ্নে সমর্থন চাইছেন৷ বিশেষ করে মেক্সিকো সীমান্তে প্রাচীর গড়ার বিতর্কিত সিদ্ধান্তে তাদের সম্মতি আশা করছেন ট্রাম্প৷

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আনুমানিক প্রায় ১ কোটি ১০ লক্ষ নথিবিহীন অভিবাসী বসবাস করেন৷ তাদের মার্কিন নাগরিকত্ব নেবার সুযোগ করে দিতে এক সার্বিক কর্মসূচি নিয়ে বহুকাল ধরে জল্পনাকল্পনা চলছে৷ ট্রাম্প নিজে এবার এমন এক আইন প্রণয়নের উপর জোর দিচ্ছেন৷ তবে ট্রাম্পের সমর্থকরা এমন এক প্রচেষ্টাকে যে ভালো চোখে দেখবেন না, সে বিষয়ে সন্দেহ নেই৷

Make Website

 

Quick Contact